পেনাল্টি মিসে বার্সার হার, ৫ গোলে বিধ্বস্ত বায়ার্ন

ক্রীড়া ডেস্ক, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ২৮ অক্টোবর ২০২১, ০৯:১৩

বার্সেলোনা ম্যাচের অধিকাংশ সময় জুড়ে বল পায়ে রাখল। তবে আক্রমণ শানিয়ে রক্ষণে ভীতি ছড়ানোয় আধিপত্য করল রায়ো ভায়েকানো। পেনাল্টি মিসে হারতে হয়েছে তাদের। অপরদিকে জার্মান লিগ কাপের দ্বিতীয় রাউন্ডে বরুসিয়া মুনচেনগ্লাডবাখের বিপক্ষে ৫-০ গোলের ব্যবধানে হার বরণ করল বায়ার্ন মিউনিখ।

খেলার প্রথমার্ধে পিছিয়ে পড়া কাতালানরা বিরতির পর সুযোগ পেয়েছিল সমতায় ফেরার। কিন্তু সেটা কাজে লাগাতে না পারায় ফের হার নিয়ে মাঠ ছাড়তে হলো তাদের।

বুধবার রাতে স্প্যানিশ লা লিগায় প্রতিপক্ষ রায়ো ভায়েকানোর মাঠে ১-০ গোলে হেরেছে বার্সা। ম্যাচে পার্থক্য গড়ে দেওয়া গোলটি করেন কলম্বিয়ান স্ট্রাইকার রাদামেল ফ্যালকাও।

স্বাগতিক রায়ো গোলমুখে ১৩টি শট নিয়ে লক্ষ্যে রাখে তিনটি। বিপরীতে, বার্সার নেওয়া ১৬টি শটের কেবল একটি ছিল লক্ষ্যে।

৩০তম মিনিটে নিজেদের ভুলেই পিছিয়ে পড়ে সফরকারীরা। সার্জিও বুসকেতসের পা থেকে বল কেড়ে নেন অস্কার ত্রেহো। তার পাসে ডি-বক্সের ভেতর থেকে কোণাকুণি শটে জাল কাঁপান ফ্যালকাও।

৭২তম মিনিটে মেমফিস ডিপাই ফাউলের শিকার হন ডি-বক্সে। রেফারি বাজান পেনাল্টির বাঁশি। কিন্তু ডিপাই নিজেই স্পট-কিক নিয়ে ব্যর্থ হন। তার শট ডানদিকে ঝাঁপিয়ে রুখে দেন রায়ো গোলরক্ষক স্তোল দিমিত্রিয়েভস্কি।

অপরদিকে প্রতিপক্ষকে প্রায় ম্যাচেই হালি হালি গোল দেওয়া বায়ার্ন মিউনিখই হজম করল পাঁচ গোল।

বরুসিয়া পার্কে দ্বিতীয় মিনিটেই পিছিয়ে পড়ে রবার্ট লেওয়ানডোস্কিদের দল। সতীর্থ ব্রিল এমবোলোর কাছ থেকে বল কেড়ে নিয়ে এ সময় লক্ষ্যভেদ করেন মিডফিল্ডার কৌদিও কোনে। ১৫তম মিনিটে অনেকটা ফাঁকা জায়গা থেকে বল জালে জড়ান র‍্যামি বেনসেবাইনি। ব্রিল ডি বক্সের একটু বাইরে থেকে বল পাস দেন ডান প্রান্তে থাকা জোনাস হফম্যানকে। দৌড়রত অবস্থায়ই তিনি বল পাঠিয়ে দেন র‍্যামির কাছে।

দ্বিতীয় গোলের ছয় মিনিট অতিবাহিত হতে না হতে আরও একবার উদযাপনের উপলক্ষ আসে বরুসিয়ার সামনে। তবে এবার উপায় পেনাল্টি। বায়ার্ন গোলরক্ষক ম্যানুয়েল ন্যুয়ারকে ফাঁকি দিয়ে জোড়া গোল পূর্ণ করেন র‍্যামি।

৩-০ গোলে এগিয়ে থেকে বিরতিতে যাওয়া বরুসিয়ার পরের দুটি গোলই ব্রিলের। ৫১তম মিনিটে নিকো এলভেদি ও ৫৭তম মিনিটে লুকা নেটজের কাছ থেকে বল পেয়ে জালের দেখা পান তিনি। বিপরীতে রবার্ট লেওয়ানডোস্কি, থমাস মুলাররা গোলের দেখাই পাননি। যদিও লক্ষ্যে ও লক্ষ্যের বাইরে শটের দিক দিয়ে এগিয়েছিল বায়ার্ন মিউনিখই। বরুসিয়া লক্ষ্যে ৭টি, লক্ষ্যের বাইরে ১৩টি শট নিলেও বায়ার্ন লক্ষ্যে ৮টি ও লক্ষ্যের বাইরে ১৫টি শট নিয়েছে এ ম্যাচে।

মুনচেনগ্লাডবাখের গোলরক্ষক ইয়ান সোমারের দৃঢ়তায় গোল করা হয়ে উঠেনি বায়ার্নের। বরুসিয়ার চেয়ে বল দখল, নিয়ন্ত্রণ ও আধিপত্যের দিক দিয়েও এগিয়েছিল জার্মান জায়ান্টরা। তবুও শেষ পর্যন্ত ৫-০ গোলের লজ্জার হারই সঙ্গী হলো তাদের।

ঢাকাটাইমস/২৮অক্টোবর/একে

----

সংবাদটি শেয়ার করুন

খেলাধুলা বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :